Search This Blog

Theme images by MichaelJay. Powered by Blogger.

Blog Archive

Thursday, December 8, 2016

নাই হল মা বসন ভূষণ

(গান)


নাই হল মা বসন ভূষণ এই ঈদে আমার।


আল্লা আমার মাথার মুকুট, রসুল গলার হার।।


 নামাজ রোজার ওড়না শাড়ি


 ওতেই আমায় মানায় ভারী


কলমা আমার কপালে টিপ, নাই তুলনা তার।।


হেরা গুহার হিরার তাবিজ কোরান বুকে দোলে


হাদিস ফেকাফেকা : শরিয়ত, ধর্মীয় আইন। বাজুবন্দ, দেখে পরান ভোলে।


 হাতে সোনার চুড়ি যে মা


 হাসান হোসেন মা ফাতেমা


মোর অঙ্গুলিতে অঙ্গুরী মা, নবির বার ইয়ার।।


এই ইদজ্জোহার চাঁদে যে পশু কোরবানি দেওয়ার কথা আল্লাহ্ বলেছেন – সে পশু কেমন কোরআন – মজিদের সুরা বকরায় অষ্টম রুকুতেরুকুত : পরিচ্ছেদে। তার ইঙ্গিত আছে। যে গোরু বা পশু উজ্জ্বল স্বর্ণবর্ণ, নিষ্কলঙ্ক, যে গোরু কখনও ভূমি কর্ষণ করে না, জল সেচন করে না –ইত্যাদি। এই পশু কোরবানি দিলে পুলসেরাতপুলসেরাত : স্বর্গের প্রবেশপথের দুর্গম সাঁকো। পার হয়ে আল্লাহের দিদারদিদার : দর্শন। হয়। এই গো অর্থে ঐশ্বর্য, বিভূতি, জ্ঞান । এই দুনিয়ায় গো কোরবানি করে পুণ্য অর্জন হয়, কিন্তু আল্লাহের দিদার মেলে না। এই দুনিয়াতেই যাঁরা আল্লাহের দিদার চান, সেই সুফিরা জানেন, সুরা বকরার এই গো – সুফি বা সাধক যে যোগৈশ্বর্য পান, এবং তাঁর দেহে স্বর্ণ জ্যোতির আভাস ফুটে ওঠে, যে শক্তি-বলে তিনি বহু মাজেজা দেখাতে পারেন সেই জ্যোতি ও শক্তি বা বিভূতি– তাকেই আল্লাহের নামে উৎসর্গ করা হয় তা হলে পুলসেরাত বা সেরাতুল মোস্তাকিমেরমোস্তাকিম : আল্লার নির্ধারিত পথ। শেষ বাধা পার হয়ে আল্লাহের দিদার পাওয়া যায়। এই দুনিয়ার কাবায় হজ করার নিশ্চয়ই প্রয়োজন আছে, কারণ ইহা ফরজ্ কিন্তু – যেখানে গেলে আল্লাহ্‌র দিদার হয় – সেই আসল কাবা শরিফের ঊর্ধ্বতম দেশে – ব্রহ্মরন্ধ্রে ছয় লতিফার ঊর্ধ্বে! তার নাম ফানাফির রসুল, ফানাফিল্লাহ্।

No comments:
Write comments

Interested for our works and services?
Get more of our update !