Search This Blog

Theme images by MichaelJay. Powered by Blogger.

Blog Archive

Saturday, November 26, 2016

পথের দিশা

চারিদিকে এই গুণ্ডা এবং বদমায়েসির আখ্‌ড়া দিয়ে


রে অগ্রদূত, চ’লতে কি তুই পারবি আপন প্রাণ বাঁচিয়ে?


পারবি যেতে ভেদ ক’রে এই বক্র-পথের চক্রব্যুহ?


উঠবি কি তুই পাষাণ ফুঁড়ে বনস্পতি মহীরুহ?


আজকে প্রাণের গো-ভাগাড়ে উড়ছে শুধু চিল-শকুনি,


এর মাঝে তুই আলোকে-শিশু কোন্‌ অভিযান ক’রবি, শুনি?


ছুঁড়ছে পাথর, ছিটায় কাদা, কদর্যের এই হোরি-খেলায়


শুভ্র মুখে মাখিয়ে কালি ভোজপুরীদের হট্ট-মেলায়


বাঙলা দেশও মাত্‌ল কি রে? তপস্যা তার ভুললো অরুণ?


তাড়িখানার চীৎকারে কি নাম্‌ল ধুলায় ইন্দ্র বরুণ?


ব্যগ্র-পরান অগ্রপথিক,কোন্‌ বাণী তোর শুনাতে সাধ?


মন্ত্র কি তোর শুন্‌তে দেবে নিন্দাবাদীর ঢক্কা-নিনাদ?


  


নর-নারী আজ কন্ঠ ছেড়ে কুৎসা-গানের কোরাস্‌ ধ’রে


ভাবছে তা’রা সুন্দরেরই জয়ধ্বনি ক’রছে জোরে?


এর মাঝে কি খবর পেলি নব-বিপ্লব-ঘোড়সাওয়ারী


আসছে কেহ? টুট্‌ল তিমির, খুল্‌ল দুয়ার পুব-দয়ারী?


ভগবান আজ ভূত হ’ল যে প’ড়ে দশ-চক্র ফেরে,


যবন এবং কাফের মিলে হায় বেচারায় ফিরছে তেড়ে!


বাঁচাতে তায় আসছে কি রে নতুন যুগের মানুষ কেহ?


ধুলায় মলিন, রিক্তাভরণ, সিক্ত আঁখি, রক্ত দেহ?


মসজিদ আর মন্দির ঐ শয়তানদের মন্ত্রণাগার,


রে অগ্রদূত, ভাঙতে এবার আসছে কি জাঠ কালাপাহাড়?


জানিস যদি, খবর শোনা বন্ধ খাঁচার ঘেরাটোপে,


উড়ছে আজো ধর্ম-ধ্বজা টিকির গিঁঠে দাড়ির ঝোপে!


নিন্দাবাদের বৃন্দাবনে ভেবেছিলাম গাইব না গান,


থাকতে নারি দেখে শুনে সুন্দরের এই হীন অপমান।


ক্রুদ্ধ রোষে রুদ্ধ ব্যথায় ফোঁপায় প্রাণে ক্ষুদ্ধ বাণী,


মাতালদের ঐ ভাঁটিশালায় নটিনী আজ বীণাপাণি!


জাতির পারণ-সিন্ধু মথি’ স্বার্থ-লোভী পিশাচ যারা


সুধার পাত্র লক্ষ্মীলাভের ক’রতেছে ভাগ-বাঁটোয়ারা,


বিষ যখন আজ উঠল শেষে তখন কারুর পাইনে দিশা,


বিষের জ্বালায় বিশ্ব পুড়ে, স্বর্গে তাঁরা মেটান তৃষা!


শ্মাশন-শবের ছাইয়ের গাদায় আজকে রে তাই বেড়াই খুঁজে,


ভাঙন-দেব আজ ভাঙের নেশায় কোথায় আছে চক্ষু বুঁজে!


রে অগ্রদূত, তরুণ মনের গহন বনের রে সন্ধানী,


আনিস্‌ খবর, কোথায় আমার যুগান্তরের খড়্‌পপাণি!


  


কলিকাতা,


১৬ই চৈত্র, ১৩৩৩

No comments:
Write comments

Interested for our works and services?
Get more of our update !